মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশপুরে ৪ নং স্বরুপপুর ইউনিয়ন এর মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী দিপু স্বরুপপুর ইউনিয়নের গরীব-দুঃখী মানুষের আস্থার ঠিকানা বশির আহম্মেদ ভারতীয় নাগরিকত্ব নিয়েই হলেন ইউপি চেয়ারম্যান, স্ত্রীও করছেন সরকারি চাকুরী উবার-পাঠাও চালকদের ধর্মঘটের ডাক খুলনায় করোনায় উপসর্গে নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যের ইন্তেকাল ৪ নং স্বরুপপুর ইউনিয়নের যুবসমাজের আইডিয়াল – বশির আহম্মেদ আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৪ নং স্বরুপপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের অন্যতম নেতা বশির আহম্মেদ কে চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চায় এলাকাবাসী। মহেশপুরে ৪ নং স্বরুপপুর ইউনিয়নের, সর্বস্তরের মানুষের ভালোবাসার আর এক নাম  বশির আহম্মেদ। মহেশপুর সীমান্তে অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করায় আটক ১১ আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জনসংযোগে ব্যস্ত-৪নং স্বরূপপুর ইউনিয়নের নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশি বশির আহম্মেদ

অতিরিক্ত জোয়ারে হাতিয়ার ২১টি গ্রাম প্লাবিত হাতিয়া (নোয়াখালী) জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে হাতিয়ার অনেক এলাকা, জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে হাতিয়ার অনেক এলাকা।

দৈনিক বাংলার মুখ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮৯ বার পড়া হয়েছে


এম এ মুজাহিদ বিল্লাহ, বার্তা সম্পাদক:

অমাবস্যার কারণে অস্বাভাবিক জোয়ারে নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার ৫টি ইউনিয়নের ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে এসব ইউনিয়নে বসবাসকারী প্রায় ১০ হাজার মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।

স্থানীয়রা জানায়, গত তিনদিন ধরে অব্যাহত অস্বাভাবিক জোয়ারে হাতিয়ার সূখচর, নলচিরা, চরকিং, চরঈশ্বর ও তমরদ্দি ইউনিয়নের ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে ভেসে গেছে মানুষের ঘরবাড়ি, গবাদিপশু, পুকুরের মাছ ও ফসলি জমি। শুক্রবার থেকে প্রতিদিন দিনে ও রাতে জোয়ারের কারণে অধিকাংশ সময় পানিতে তলিয়ে থাকছে এসব এলাকা। অনেকের দৈনন্দিন রান্নার কাজ ব্যহত হওয়ায় অনাহারে অর্ধাহারে দিন যাপন করতে হচ্ছে।

উপজেলার চরঈশ্বর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম মহব্বত বলেন, আম্পানে আমার এলাকার কলেজ গেইট থেকে মাইজচা মার্কেট রাস্তাটি ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছিল। এলাকাবাসীর সহযোগীতায় তা মেরামত করে চলাচলের উপযোগী করা হয়। কিন্তু রোববার রাতের অস্বাভাবিক জোয়ারে তা আবার ভেঙে যায়। একই অবস্থা সূখচর ও নলচিরা ইউনিয়নে। তমরদ্দি ইউনিয়ন এর পশ্চিম ক্ষিরোদিয়া ও আঠারো বেকী অতিরিক্ত জোয়ারের পানিতে ডুবে যায়।
ভেসে গেছে অনেকের গরু ছাগল। তমরদ্দি ইউনিয়ন ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ছাইফুল মেম্বার বলেন সাধারণ মানুষের অনেক ক্ষতি হয়ে গেছে।

সূখচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন বলেন, একমাস আগের জোয়ারে ইউনিয়নের সকল রাস্তা ভেঙে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তা এখনো মেরামত করা হয়নি। এখন আবার জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে। পুরো সূখচর ৫-৬ ফুট পানির নিচে তলিয়ে গেছে। একাধিকবার বেড়িবাঁধ মেরামতের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বলার পরও কাজ হচ্ছে না।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম জানান, অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে অনেক এলাকা তলিয়ে গেছে। আমরা বিষয়টি প্রতিবেদন আকারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পোস্ট
© All rights reserved © 2021 dainikbanglarmukh
Theme Developed BY ThemesBazar.Com