সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০১:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মনোনয়ন ফরম জমা দিলেন স্বরুপপুর  ইউপির আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী- মিজানুর রহমান  ঝিনাইদহে বিএমএসএফ’র ১৪ দফা নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা আহত প্রধান শিক্ষকের পাশে দাঁড়াতে গোপালগঞ্জে যাচ্ছেন শিক্ষক সমিতির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। মহেশপুরে বিএনপির ২ টি ইউনিয়নে দ্বিবার্ষিক সম্মেলণ অনুষ্ঠিত। মহেশপুরে ৪ নং স্বরুপপুর  ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান এডভোকেট.  হুমায়ন কবির  কে আবারও চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চায় এলাকাবাসী। ঝিনাইদহের মহেশপুরে পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক জাহিদ হাসান লাঞ্চিত  মহেশপুরে ৪ নং স্বরুপপুর ইউনিয়ন এর মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন চেয়ারম্যান মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল হান্নান মহেশপুরে চেয়ারম্যান মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল হান্নানের গণসংযোগ রাতের প্রহরী অনুভূতি

অভিযোগের শেষ নেই নানা অসঙ্গতীতে চলছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগ

দৈনিক বাংলার মুখ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শনিবার, ২ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২১৯ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কমিটি গঠনের পর থেকে এ যাবৎ নানা অনিয়ম, অসঙ্গতী ও অগঠনতান্ত্রিক ভাবেই পরিচালিত হয়ে আসছে জাতীয় শ্রমিক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কমিটি। আগামী সম্মেলনকে সামনে রেখেও শুরু হয়েছে নানামুখী অনিয়ম। ভুক্তভোগীরা ইচ্ছা থাকলেও একই দলের নেতাদের সাংগঠনিক চরিত্র নিয়ে কথা বলতে চায়না। তবে আগামী সম্মেলনে যাতে স্বচ্ছ ও দক্ষ লোককে সাংগঠনিক দায়িত্ব দেয়া হয় তার জন্য অনেকেই সাহস নিয়ে মুখ খুলতে শুরু করেছে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিকলীগের এক সিনিয়র নেতা গনমাধ্যমকে জানান ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠনের পর এ যাবৎ কোন কার্যনির্বাহী কমিটির সভাই কোরাম পূর্ন হয়নি। ৭১ জনের মধ্যে কোন মিটিং এই ২৫/৩০ জনের বেশী সদস্য উপস্থিত থাকেনা। এ ছাড়াও সকল সদস্যকে মিটিং এ দাওয়াত দেয় হয় না বলেও অভিযোগ রয়েছে। একটি সুত্র জানায়, সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লা তার পচ্ছন্দের লোকদেরকেই মিটিং এ দাওয়াত দিয়ে থাকেন। অন্য একটি সুত্র জানায়, জাতীয় শ্রমিক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার ২৪টি সাংগঠনিক কমিটিই টাকার বিনিময়ে যোগ্য নেতাদের বাদ দিয়ে অযোগ্য বিএনপি, জামাত ও নব্যদের দিয়ে কমিটি দেয়া হয়েছে। এক একটি কমিটি থেকে ১ লাখ টাকা থেকে ২ লাখ টাকাও নেওয়া হয়েছে বলে অনেকে জানিয়েছেন। তবে বর্তমান কমিটির কার্যকরী সদস্য মোঃ রোকন সাংবাদিকদের জানান, তার কাছে সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লা ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করেছেন। সেই টাকা না দেয়াতে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই মুগদা কমিটি ভেংগে দিয়ে নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ রকম ভাবে দাবীকৃত টাকা না দেয়ার কারনে বেশ কয়েকটি কমিটির মেয়াদ শেষ না হতেই টাকা নিয়ে নতুন কমিটি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। । সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার অভিযোগও করেছে একটি মহল। ঢাকা মহানগর নাট্য মঞ্চ এলাকায় তার নির্দেশ ও নেতৃত্বে এই ব্যবসা চলে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ছাড়াও কমিটি দেয়ার নামে অবৈধ লেনদেন হয় এই ঢাকা মহানগর নাট্য মঞ্চ এলাকায় এমনটি অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। অন্য একটি সূত্র জানায়, সম্পূর্ন অসাংগঠনিক ভাবে এবং জাতীয় শ্রমিক লীগের গঠনতন্ত্রের পরিপন্থী নিয়মে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগের কমিটির মোট ১৩ জনকে বহিস্কার করা হয়েছে।
২০১৩ সালের ২৩ এপ্রিলের জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলাম স্বাক্ষরিত একটি পত্র মারফত জানা যায়, ১৩ জনকে এক পত্রে কারন দর্শানোর নোটিশ প্রদান ও সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে ঐ ১৩ জন নেতা সাংবাদিকদের বলেন, কোন নোটিশ না দিয়েই একই চিঠিতে যে সাময়িক বহিস্কার ও শোকজ নোটিশ দিয়েছে এটা অবান্তর। তারা বলেন, ঢাকা মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লা ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাচ্ছেন। ভুক্তভোগীরা জানান, বর্তমান সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লা কোন বেসিক ইউনিয়নের নেতা নয়, যে কারনে তিনি ট্রেড ইউনিয়নের আইন সম্পর্কে অবগত নয়। অন্য এক অভিযোগে জানা যায়, সম্প্রতি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি সামসুল আলম বকুল মৃত্যুবরন করেন্। তার মৃত্যুর তিনদিন পরই কোন সাংগঠনিক মিটিং ছাড়াই সফিকুল আলম বুলুকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দিয়েছেন সাধারন সম্পাদক। অভিযোগ অনুযায়ী আরও জানা যায়, আসন্ন জাতীয় সম্মেলনকে কেন্দ্র করে পদ পদবী বিক্রি করার পায়তারা করছে কমিটির সুবিধা ভোগী নেতারা। তারা দুর্নিতীবাজ নেতাদের বিরুদ্দে ব্যবস্থা নিতে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। তবে এ ব্যাপারে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লা বলেন, আমার ও বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগই মিথ্যা ও বানোয়াট।অভিযোগের শেষ নেই

নানা অসঙ্গতীতে চলছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগ।।
স্টাফ রিপোর্টারঃ কমিটি গঠনের পর থেকে এ যাবৎ নানা অনিয়ম, অসঙ্গতী ও অগঠনতান্ত্রিক ভাবেই পরিচালিত হয়ে আসছে জাতীয় শ্রমিক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ কমিটি। আগামী সম্মেলনকে সামনে রেখেও শুরু হয়েছে নানামুখী অনিয়ম। ভুক্তভোগীরা ই”ছা থাকলেও একই দলের নেতাদের সাংগঠনিক চরিত্র নিয়ে কথা বলতে চায়না। তবে আগামী সম্মেলনে যাতে স্ব”ছ ও দক্ষ লোককে সাংগঠনিক দায়িত্ব দেয়া হয় তার জন্য অনেকেই সাহস নিয়ে মুখ খুলতে শুরু করেছে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিকলীগের এক সিনিয়র নেতা গনমাধ্যমকে জানান ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠনের পর এ যাবৎ কোন কার্যনির্বাহী কমিটির সভাই কোরাম পূর্ন হয়নি। ৭১ জনের মধ্যে কোন মিটিং এই ২৫/৩০ জনের বেশী সদস্য উপ¯ি’ত থাকেনা। এ ছাড়াও সকল সদস্যকে মিটিং এ দাওয়াত দেয় হয় না বলেও অভিযোগ রয়েছে। একটি সুত্র জানায়, সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লা তার প”ছন্দের লোকদেরকেই মিটিং এ দাওয়াত দিয়ে থাকেন। অন্য একটি সুত্র জানায়, জাতীয় শ্রমিক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার ২৪টি সাংগঠনিক কমিটিই টাকার বিনিময়ে যোগ্য নেতাদের বাদ দিয়ে অযোগ্য বিএনপি, জামাত ও নব্যদের দিয়ে কমিটি দেয়া হয়েছে। এক একটি কমিটি থেকে ১ লাখ টাকা থেকে ২ লাখ টাকাও নেওয়া হয়েছে বলে অনেকে জানিয়েছেন। তবে বর্তমান কমিটির কার্যকরী সদস্য মোঃ রোকন সাংবাদিকদের জানান, তার কাছে সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লা ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করেছেন। সেই টাকা না দেয়াতে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই মুগদা কমিটি ভেংগে দিয়ে নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ রকম ভাবে দাবীকৃত টাকা না দেয়ার কারনে বেশ কয়েকটি কমিটির মেয়াদ শেষ না হতেই টাকা নিয়ে নতুন কমিটি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। । সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব মোল্লার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার অভিযোগও করেছে একটি মহল। ঢাকা মহানগর নাট্য মঞ্চ এলাকায় তার নির্দেশ ও নেতৃত্বে এই ব্যবসা চলে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ছাড়াও কমিটি দেয়ার নামে অবৈধ লেনদেন হয় এই ঢাকা মহানগর নাট্য মঞ্চ এলাকায় এমনটি অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। অন্য একটি সূত্র জানায়, সম্পূর্ন অসাংগঠনিক ভাবে এবং জাতীয় শ্রমিক লীগের গঠনতন্ত্রের পরিপš’ী নিয়মে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় শ্রমিক লীগের কমিটির মোট ১৩ জনকে বহিস্কার করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পোস্ট
© All rights reserved © 2021 dainikbanglarmukh
Theme Developed BY ThemesBazar.Com