বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জনসংযোগে ব্যস্ত-৪নং স্বরূপপুর ইউনিয়নের নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশি বশির আহম্মেদ “স্মৃতিচারণ” ২য় শ্রেণীর দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানি অভিযোগ উঠেছে মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে,শিক্ষক পলাতক! মহেশপুরে ইজিবাইক চালককে পিটিয়ে হত্যা ১৪/০৯/২০২১ তারিখ রাউজানে চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয় এর অভিযানে রাউজানে একাধিক মদের মামলার আসামী ১৫ লিটার মদ সহ গ্রেফতার ০১ জন, মামলা দায়েরঃ দ্বীপ উন্নয়ন সংস্থার কর্মপ্রচেষ্টায় প্রাণী সুরক্ষাসেবা কার্যক্রম। জীবননগরে ওষুধের দাম বেশি নেওয়ার অভিযোগ !!! পাব কি ঠাঁই? সরকারি কর্মকর্তাদের ‘স্যার-ম্যাডাম’ বলার রীতি নেই প্রাথমিক বিদ্যালয় রিওপেনিং নিয়ে নোয়াখালী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস কৃর্তক আলোচনা

বয়স জালিয়াতি করে বিয়ে মহিলা কাউন্সিলরকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা

দৈনিক বাংলার মুখ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৩ মে, ২০১৯
  • ২৬২ বার পড়া হয়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ

স্কুলের ভুয়া প্রশংসা পত্র ও জন্ম নিবন্ধন পত্র দিয়ে বয়স জালিয়াতি করে অপ্রাপ্ত বয়স্ক এক কিশোরীকে বিয়ে দেওয়ার অপরাধে ঝিনাইদহ পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর বুলবুলি খাতুনকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাম্মী ইসলাম। সোমবার দুপুরে এক অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরে এই জরিমানা করা হয়। জানা গেছে গত ২৭ এপ্রিল শহরের কাঞ্চননগর স্কুলে পড়ুয়া পবহাটী গ্রামের এক ছাত্রীর শৈলকুপার উমেদপুর হাই স্কুলের ভুয়া প্রশংসা পত্র দিয়ে ঝিনাইদহ পৌরসভা থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদ নেওয়া হয়। এই নিবন্ধন ফরমে সাক্ষর করেন ঝিনাইদহ পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড কাউন্সিলর বুলবুলি খাতুন। ওই জন্ম সনদের ভিত্তিত্বে কিশোরীকে কালীগঞ্জ উপজেলার সুন্দরপুর গ্রামের শওকত আলীর ছেলে রাশেদুল ইসলামের সাথে বিয়ে দেওয়া হয়। বয়স জালিয়াতির বিষয়টি জানাজানি হলে সোমবার দুপুরে সংশ্লিষ্টদের ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিসে তলব করা হয়। ঘটনাস্থলে বিয়ের কাজী মাওলানা আনোয়ার হোসেন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর বুলবুলি খাতুন, পৌরসভার স্যানিটারি ইন্সপেক্টর শংকর নন্দি ও উমেদপুর হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষকসহ বর কনের অভিভাবকরা উপস্থিত হন। শুনানীকালে শৈলকুপার উমেদপুর হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক তার স্কুলের প্যাডে দেওয়া প্রশংসাপত্রটি ভুয়া বলে চিহ্নিত করেন। ফলে ভুয়া প্রশংসা পত্রের বিনিময়ে নেওয়া ঝিনাইদহ পৌরসভার জন্ম সনদও ত্রুটিপুর্ন বলে বিবেচিত হয়। ফেঁসে যান কাউন্সিলর বুলবুলি খাতুন। এ ঘটনায় বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ‘১৭ এর ৮ ধারা মোতাবেক দোষী সাব্যস্ত করে ওয়ার্ড কাউন্সিলর বুলবুলি খাতুনকে নগদ পাঁচ হাজার টাকা অর্থ দন্ড করা হয়। এ সময় ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাম্মী ইসলাম বিয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ভবিষ্যতে এ ধরনের অপরাধ মূলক কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য নির্দেশ দেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পোস্ট
© All rights reserved © 2021 dainikbanglarmukh
Theme Developed BY ThemesBazar.Com