বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জনসংযোগে ব্যস্ত-৪নং স্বরূপপুর ইউনিয়নের নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশি বশির আহম্মেদ “স্মৃতিচারণ” ২য় শ্রেণীর দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানি অভিযোগ উঠেছে মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে,শিক্ষক পলাতক! মহেশপুরে ইজিবাইক চালককে পিটিয়ে হত্যা ১৪/০৯/২০২১ তারিখ রাউজানে চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয় এর অভিযানে রাউজানে একাধিক মদের মামলার আসামী ১৫ লিটার মদ সহ গ্রেফতার ০১ জন, মামলা দায়েরঃ দ্বীপ উন্নয়ন সংস্থার কর্মপ্রচেষ্টায় প্রাণী সুরক্ষাসেবা কার্যক্রম। জীবননগরে ওষুধের দাম বেশি নেওয়ার অভিযোগ !!! পাব কি ঠাঁই? সরকারি কর্মকর্তাদের ‘স্যার-ম্যাডাম’ বলার রীতি নেই প্রাথমিক বিদ্যালয় রিওপেনিং নিয়ে নোয়াখালী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস কৃর্তক আলোচনা

‘নিচু জাতের’ মায়ের লাশ বাইসাইকেলে বেঁধে একা সরোজ …

দৈনিক বাংলার মুখ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০১৯
  • ৩১৯ বার পড়া হয়েছে

ভারতের ওড়িশায় ১৭ বছরের কিশোর সরোজ মায়ের লাশ বাইসাইকেলে বেঁধে একাই চলেছে জঙ্গলের পথে।

বাংলার মুখ ডেক্স:

ভেজা চোখ। দৃষ্টি ঝাপসা। অশ্রু গড়িয়ে পড়লেও মোছার সময় নেই, ইচ্ছাও নেই। কাঁপা কাঁপা হাত। বাইসাইকেলের পেছনে ক্যারিয়ারে বাঁধা মায়ের মৃতদেহ। তা নিয়ে হেঁটে এগিয়ে যাচ্ছে একা, পিতৃহারা এক কিশোর। তাকে একাই যেতে হবে। সে যে ‘নিচু জাতের’! প্রতিবেশীরা তাই এগিয়ে আসবে না। শুধু তাই নয়, শ্মশানে দাহ করারও সুযোগ নেই। দিতে হবে মাটিচাপা। এভাবে নিষ্ঠুর জাতভেদের কারণে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দূরের জঙ্গলে গিয়ে মাকে এক সমাহিত করতে হয়েছে ওই কিশোরকে।

ঘটনাটি ঘটেছে সম্প্রতি ভারতের সেই ওড়িশা রাজ্যের লক্ষ্মণপুর জেলার কার্পাবাহাল গ্রামে। সরোজ নামের ওই ১৭ বছরের বালক বছর সাতেক আগে তার বাবাকে হারিয়েছিল। এবার হারাল মাকে। কিন্তু একা হয়ে পড়া বালকটির পাশে কেউ এসে দাঁড়ায়নি। সান্ত্বনাও দেয়নি। উল্টো জাতভেদের সীমাই তারা তাকে নিষ্ঠুরভাবে দেখিয়ে দিল।

এই ওড়িশা রাজ্যেই দুই বছর আগে অ্যাম্বুল্যান্সের অর্থ জোগাড় করতে না পারায় স্ত্রীকে কাঁধে করে ১০ কিলোমিটার দূরের হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলেন দরিদ্র কৃষক দানা মাঝি, যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছিল। এবারের সরোজের ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়ে পড়ায় ভারতের করুণ জাতভেদের চিত্র দেখা গেল আবারও।

সরোজের মৃত মায়ের নাম জানকী সিনহানিয়াই (৪৫)। সংসার চালাতেন? বাড়ির কাজ থেকে শুরু করে ছেলের দায়িত্ব—সবই একা হাতে সামলাতেন লড়াকু নারী। এদিন সকালে বাড়ির কুয়ো থেকে পানি তুলছিলেন তিনি? সে সময় আচমকা উঠোনে পড়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে জ্ঞানও হারান। সেই জ্ঞান আর ফিরে আসেনি। সেখানেই মারা যান জানকী? মা ছাড়া আর কেউই ছিল না সরোজের? দিশাহারা হয়ে পড়ে সে। জীবনে এর চেয়ে কঠিন সময় আর কী হতে পারে? কিন্তু যে প্রতিবেশীরা ডাকলেই সরোজকে কাছে পেত, সরোজও এগিয়ে যেত নানা সাহায্যে, সেই প্রতিবেশীরা তার কঠিনতম সময়ে এগিয়ে আসেনি।  কারণ সরোজ ‘নিচু’ জাতের? তাই শ্মশানযাত্রী হিসেবে সরোজকে সঙ্গ দিতে রাজি নয় কেউই।

কেউ সঙ্গ না দিলেও মায়ের সৎকার তো আর ফেলে রাখা যাবে না? ত্রিভুবনে একা হয়ে পড়া ছেলেটি শ্মশানে মাকে দাহ করতে চেয়েছিল। কিন্তু আবারও নিচু জাত বলে বাধা। তাই বাধ্য হয়ে তাকে মায়ের মৃতদেহ মাটিচাপা দেওয়ার সিদ্ধান্তই নিতে হলো।

সেভাবেই প্রস্তুতি নেয় সরোজ। মায়ের পা থেকে মাথা পর্যন্ত ঘরের পুরনো কাপড় দিয়ে বেঁধে পুরো শরীর ঢেকে দেয় সে? আর সাইকেলের ক্যারিয়ারে ওপর বাঁশের বিছানা তৈরি করে নেয়। এরপর ক্যারিয়ারে বাঁধা সেই বিছানায় মায়ের মৃতদেহ রশি দিয়ে শক্ত করে বেঁধে নেয়। অতঃপর শুরু হয় তার মায়ের শবযাত্রা, পুত্রের সঙ্গে একা। গন্তব্য চার-পাঁচ কিলোমিটার দূরের জঙ্গল। কিন্তু এর মধ্যে মানুষের জিজ্ঞাসার শেষ নেই। কে, কোথায় যাচ্ছে—নানা প্রশ্নের জবাব দিতে হচ্ছে তাকে ক্লান্ত শরীর নিয়ে। কিন্তু উত্তর শুনেও কেউ এগিয়ে আসে না। দু-একটি সমবয়সী ছেলে কিছুটা দূর এগিয়ে গিয়েও ফিরে আসে, হয়তো সংস্কারের বাধায়। শেষ পর্যন্ত একাই জঙ্গলে গিয়ে মায়ের দেহ সমাহিত করে সে।

ধর্ম-বর্ণের ভেদাভেদ ভুলে আদৌ কি এগোতে পেরেছে ভারতের সমাজ? ওড়িশার এই ঘটনার পর আরো একবার এই প্রশ্ন উঠে এলো। সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে।

 

[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক বাংলার মুখ অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। জাতীয় ,রাজনীতি,  বিনোদন ,লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- dainikbanglarmukh@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পোস্ট
© All rights reserved © 2021 dainikbanglarmukh
Theme Developed BY ThemesBazar.Com