শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশপুরে ইজিবাইক চালককে পিটিয়ে হত্যা ১৪/০৯/২০২১ তারিখ রাউজানে চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয় এর অভিযানে রাউজানে একাধিক মদের মামলার আসামী ১৫ লিটার মদ সহ গ্রেফতার ০১ জন, মামলা দায়েরঃ দ্বীপ উন্নয়ন সংস্থার কর্মপ্রচেষ্টায় প্রাণী সুরক্ষাসেবা কার্যক্রম। জীবননগরে ওষুধের দাম বেশি নেওয়ার অভিযোগ !!! পাব কি ঠাঁই? সরকারি কর্মকর্তাদের ‘স্যার-ম্যাডাম’ বলার রীতি নেই প্রাথমিক বিদ্যালয় রিওপেনিং নিয়ে নোয়াখালী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস কৃর্তক আলোচনা ২৫ বছরের নাতির সঙ্গে ৫৫ বছরের দাদির বিয়ে রাঙ্গুনীয়ার উত্তর পদুয়া নাপিত পুকুরিয়া’য় ১,০০০ পিস ইয়াবা সহ টেকনাফের মাদক পাচারকারী গ্রেফতার ০১ জন, মামলা দায়েরঃ হাতিয়ায় র‍্যাবের হাতে অস্ত্রসহ ২ সন্ত্রাসী গ্রেফতার !

কুষ্টিয়ায় বিয়ের দাবিতে সাংবাদ সম্মেলন, ছাত্রলীগ নেতা দ্বারা জোরপূর্বক যৌন নির্যাতনের শিকার অতঃপর ভিডিও ধারণ

দৈনিক বাংলার মুখ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮
  • ৫৫৫ বার পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : এবার বিয়ের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন কুষ্টিয়ার খোকসা যুবলীগের নেতার সাবেক স্ত্রী জুয়েনা হোসেন লিমা।
এর আগে বিয়ের দাবিতে তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সায়েম হোসেন সুজনের বাড়ির সামনে দুইদিন অবস্থান করে আলোচনায় আসেন। দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকার পর এ সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি।
শনিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার একটি রেষ্টুরেন্টে নিজের পুত্র সন্তানকে সাথে নিয়ে সাংবাদ সম্মেলন আসেন লিমা। সাংবাদিকদের সামনে লিখিত বক্তব্যে লিমা জানান, তিনি ঢাকার কেরানীগঞ্জের মেয়ে। ২০০৭ সালে তার বিয়ে হয় কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আবু উবায়দা সাফির সাথে। ২০১৭ সালে একটি মামলায় সাফি জেলে গেলে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সায়েম হোসেন সুজন খোঁজখবর করতে তাদের বাড়ীতে যেতের। একদিন বাড়ীর লোকজনদের অনুপস্থিতিতে তাকে জোরপূর্বক যৌন নির্যাতন চালায় এবং মোবাইল ফোনে তা ধারণ করে। পরবর্তিতে ভিডিও ছড়িয়ে দেবার হুমকি ও বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শারিরীক সম্পর্ক স্থায়ী করে। স্বামী জেল থেকে বের হয়ে এসে বিষয়টি টের পেয়ে তাকে তালাক দিলে লিমা ঢাকায় বাবার বাড়ীতে চলে আসে।
সম্প্রতি সুজন অন্যত্র বিয়ে করবে বলে তাদের অন্তরঙ্গ ছবি বিভিন্ন মোবাইলে ছড়িয়ে দেয়। এরপর বিয়ের দাবিতে তিনি গত ২ ফেব্রুয়ারি সুজনের বাড়ীতে চলে আসেন। সুজন বিষয়টি টের পেয়ে পরিবারের লোকজন নিয়ে বাড়ী ছেড়ে চলে যায়। এরপর তালা ভেঙ্গে লিমা সুজনের বাড়ীর বারান্দায় অবস্থান করে। দু’দিনের মাথায় পুলিশ গভীর রাতে তাকে ওই বাড়ী থেকে থানায় নিয়ে যায়। এসময় লিমা মামলা করতে চাইলে পুলিশ তা নেয়নি। পরদিন সকালে পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয়।
সুজনের লোকজনের হামলা ও গণধর্ষণের হুমকিতে লিমা আর ওই বাড়ীতে ফিরতে না পেরে খোকসায় এক বান্ধবীর বাড়ীতে আত্মগোপনে থাকে। এখন সম্মান ফিরে পেতে এবং সুজনের বিচার দাবিতে তিনি এ সাংবাদ সম্মেলন করছেন বলে দাবি করেন।
লিমা জানান, সুজন ছাত্রলীগের সভাপতি হওয়ায় পুলিশ মামলা না নিয়ে উল্টো তাকে হুমকি ধামকি দিয়েছে।
খোকসা থানার ওসি নাজমুল হুদা জানান, নিরাপত্তার স্বার্থে লিমাকে সুজনের বাড়ী থেকে নিয়ে আসা হয়। আর লিমা কোন মামলা দেয়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পোস্ট
© All rights reserved © 2021 dainikbanglarmukh
Theme Developed BY ThemesBazar.Com