মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১১:৫৪ পূর্বাহ্ন

নোটিশ :
সারাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে কল করুন : ০১৯২৭৬১৬৪৬৩
সংবাদ শিরোনাম :
মাস্ক পরিধান নিশ্চিতে জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট মৌলভীবাজারে শাহজালাল (র.) ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের দোয়া মাহফিল ঢাকায় ফেডারেশন অব সার্ক জার্নালিস্ট অর্গানাইজেশনের মতবিনিমিয় সভা মহেশপুরের শ্যামকুড় ইউনিয়নে পুলিশ ইনভেস্টিগেশন ক্যাম্প স্থাপনের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। ঝিনাইদহে দুই সাংবাদিকের নামে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সমাবেশ ও মানববন্ধন পালিত নোয়াখালী হাতিয়া উপজেলার কৃতি সন্তান মোহাম্মদ খিজির হায়াত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত ঢাকায় আরজেএফ’র উদ্যোগে স্মরণসভা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্র হিমেল সাহেব বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। শরীয়তপুরের ডা. হেলাল উদ্দিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্র জহির উদ্দিন খসরু বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত
দেওয়ানি মামলা স্থানান্তরের ক্ষমতা;

দেওয়ানি মামলা স্থানান্তরের ক্ষমতা;

 

আতিকুর রহমান(আতিক),
এল এল বি(প্রথম পর্ব),lLC:
দেওয়ানি মামলা স্থানান্তরের ক্ষমতা (Power to Transfer of of Civil Suit): দেওয়ানি কার্যবিধির অধীনে কোন মামলা দায়ের করার পর তা স্থানান্তরের বিধান আছে। এই আইনের অধীনে দুই প্রকার স্থানান্তরের ক্ষমতা আছে। যথাঃ

* একাধিক আদালতে দায়েরযোগ্য মামলা স্থানান্তরের ক্ষমতা

# মামলা স্থানান্তরের সাধারণ ক্ষমতা

একাধিক আদালতে দায়েরযোগ্য মামলা স্থান্তরের ক্ষমতাঃ কোন আদালতের এখতিয়ার নির্ধারিত হয় ঐ আদালতের আর্থিক, বিষয়বস্তু ও স্থানীয় এখতিয়ার বিবেচনা করে। দেওয়ানি প্রকৃতির কিছু মামলা একাধিক আদালতে দায়েরযোগ্য যেমনঃ অস্থাবর সম্পত্তির ক্ষতিপূরণের মামলা, মামলার বিষয়বস্তু একাধিক আদলতের স্থানীয় অধিক্ষেত্রের মধ্যে অবস্থিত হলে ইত্যাদি। কোন দেওয়ানি মামলা একাধিক আদালতে দায়েরযোগ্য হলে ঐ মামলা দেওয়ানি কার্যবিধির ২২ ধারার অধীনে আবেদন করে স্থান্তান্তর করা যায়। তবে শর্ত থাকে যে,

* ২২ ধারার অধীনে স্থানান্তরের দরখস্ত বিবাদি কর্তৃক আনীত হবে

* মামলাটি একাধিক দেওয়ানি আদালতে দায়েরযোগ্য হবে

* বিবাদিপক্ষ বাদিপক্ষকে নোটিশ প্রদান করতে হবে

* মামলা দায়েরের পর বিবাদি দরখস্তটি যতদ্রুত সম্ভব আদালতে আদায়ের করবে

বিবাদি কর্তৃক স্থানান্তরের জন্য দরখস্ত দায়েরের আদালতঃ একাধিক আদালতের দায়েরযোগ্য মামলা স্থানান্তরের দরখস্ত এই আইনের ২৩ ধারার অধীনে নিম্নের ২টি আদালতে দায়ের করা যায়। যথাঃ

(১) আপিল আদালতে (Appellate Court)

(২) হাইকোর্ট বিভাগে (High Court Division)

আপিল আদালতঃ যখন এখতিয়ার সম্পন্ন একাধিক আদালত ঐ আপিল আদালতের অধীনে হয় তখন সেই আপিল আদালতে দায়ের করতে হয়। যেমনঃ কোন অস্থাবর সম্পত্তির ক্ষতিপূরণের মামলার বিবাদি ধানমন্ডি বাস করে বাদি মিরপুর বসবাস করে। এই মামলাটি মিরপুর আদালতে চলমান থাকলে বিবাদি ২২ ধারা অধীনে তা ধানমণ্ডি আদালতে স্থানান্তরের দরখস্ত দায়ের করতে পারবে। এক্ষেত্রে মিরপুর ও ধানমণ্ডি আদালতের আপিল আদালত হল ঢাকা মেট্রোপলিটন জেলা জজ আদালত। ২২ ধারার অধীনে আনীত দরখস্তটি ঢাকা মেট্রোপলিটন জেলা জজ আদালতে দায়ের করতে হবে।

হাইকোর্ট বিভাগঃ মামলার বিচারিক আদালতগুলো ভিন্ন ভিন্ন আপিল আদালতের অধীন হলে সেক্ষেত্রে ২২ ধারার অধীনে আনীত দরখস্তটি হাইকোর্ট বিভাগে দায়ের করতে হবে। যেমনঃ যদি একাধিক আদালতে দায়েরযোগ্য মামলার যদি গাজিপুর ও ঢাকার আদালতে দায়েরযোগ্য হয় সেক্ষেত্রে মামলা স্থানান্তরের দরখস্তটি হাইকোর্ট বিভাগে দায়ের করতে হবে।

মামলা স্থানান্তরের সাধারণ ক্ষমতাঃ দেওয়ানি কার্যবিধির ২৪ ধারা অনুসারে কোন দেওয়ানি আদালতে কোন মামলা, আপিল বা অন্যন্য কার্যক্রম চলাকালে তা স্থানান্তরের জন্য মামলার যে কোন পক্ষের আবেদন করতে পারে। এই আবেদন নিম্নের দুটি আদালতে দায়ের করা যায়। যথাঃ-

(১) জেলা জজ আদালতে বা

(২) হাইকোর্ট বিভাগ

কোন পক্ষের আবেদনের ভিত্তিতে জেলা জজ আদালতে বা হাইকোর্ট বিভাগ ঐ মামলা, আপিল বা কার্য প্রক্রিয়া।

 এখতিয়ার সম্পন্ন আদালতে বদলি করতে পারে বা

 তার অধীনস্থ আদালত হতে প্রত্যাহার করতে পারে

আদালত প্রত্যাহার করলে সেক্ষেত্রে জেলা জজ আদালত বা হাইকোর্ট বিভাগ ঐ মামলা, আপিল বা কার্যক্রমটি

 নিজে নিষ্পত্তি করতে পারে;

 বিচারের জন্য পূর্বের আদালতে ফেরত পাঠাতে পারে অথবা;

 নিষ্পত্তির জন্য অন্য উপযুক্ত আদালতে প্রেরন করতে পারে

২৪ ধারার অধীনে স্থানান্তরের বিধানসমূহঃ

 বাদি বা বিবাদি যে কেউ স্থানান্তরের দরখস্ত দায়ের করে পারে বা আদালত স্বতঃপ্রবৃত হয়ে আদেশ দিতে পারে

 ২৪ ধারার অধীনে মূল মামলা, আপিল বা অন্য যে কোন কার্য প্রক্রিয়া স্থানান্তরের আবেদন করা যায়

 স্থানান্তরের দরখস্ত শুনানির জন্য নোটিশ প্রদান করা বাধ্যতামূলক নয়।

আদালতের প্রতি পক্ষদের অনাস্থা বা অন্য কোন অভিযোগ থাকলে চলামান আপিল বা মূল মামলা বা অন্য কোন প্রকৃয়া চলমান থাকাকালে জেলা জজ আদালত বা হাইকোর্ট বিভাগ ঐ মামলা বা আপিল স্থানান্তরের আদেশ দিতে পারে।

কী নোটসঃ

 ২২ ধারার অধীনে স্থানান্তরের দরখস্ত কেবল বিবাদিপক্ষ দায়ের করতে পারে; ২৪ ধারার অধীনে স্থানান্তরের দরখস্ত বাদি বা বিবাদি উভয়ই দায়ের করতে পারে এমন কি আদালত স্বতস্ফুর্ত হয়েও বদলি বা প্রত্যাহার করতে পারে।

 ২২ ধারার দরখস্তটি আপিল আদালত বা হাইকোর্টে দায়ের করা যায়; ২৪ ধারার দরখস্তটি জেলা জজ আদালতে বা হাইকোর্ট বিভাগে দায়ের করতে হয়।

 ২২ ধারার দরখস্তটি কেবল একাধিক আদালতে দায়েরযোগ্য মূল মামলার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে; কিন্তু ২৪ ধারার দরখস্তটি মূল মামলা, আপিল বা অন্য যে কোন প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

 ২২ ধারা স্থানান্তরের দরখস্ত শুনানির জন্য বাদিপক্ষকে নোটিশ প্রদান করতে হয়; ২৪ ধারার দরখস্ত শুনানির জন্য সকল ক্ষেত্রে নোটিশ প্রদানের অবশ্যকতা নেই

 ২২ ধারা দরখস্ত শুনানির পর আদালত মামলাটি উপযুক্ত আদালতে দায়েরের আদেশ প্রদান করতে পারে; কিন্তু ২৪ ধারার অধীনে আদালত ঐ মামলা বা আপিল স্থানান্তর বা প্রত্যাহার করতে পারে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 DainikBanglarMukh.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com