বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:৪৭ অপরাহ্ন

নোটিশ :
সারাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে কল করুন : ০১৯২৭৬১৬৪৬৩
সংবাদ শিরোনাম :
থাইল্যান্ডে যথাযথ মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত ‘বিশ্ব নিরাপদ খাদ্য দিবস’ উপলক্ষে আজ ঝিনাইদহে “ফুড সেফটি মুভমেন্ট” ঝিনাইদহ জেলা শাখার নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। দৌলৎগঞ্জ-মাজদিয়া স্থলবন্দর জীবননগর বাসীর প্রাণের দাবী  ঝিনাইদহ সদর থানার সেবার মান বৃদ্ধিতে হেল্প ডেস্ক’র উদ্বোধন সাধুহাটীতে খালকাটার উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক সরোজ নাথ নারী মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা দিল ন্যাশনাল এফ এফ ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট সাংবাদিক সরোয়ার হোসেন মহেশপুর পৌর মেয়র স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়বেন। উদয়ন এর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ। আরজেএফ’র উদ্যোগে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যানকে বিদায় সংবর্ধনা বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের উদ্যোগে সাংবাদিক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত
সুন্দরবনের পর্যটন শিল্প খুলে দেয়ার দাবীতে মানববন্ধন।

সুন্দরবনের পর্যটন শিল্প খুলে দেয়ার দাবীতে মানববন্ধন।

সুন্দরবনের পর্যটন শিল্প খুলে দেয়ার দাবীতে মানববন্ধন।

দিপংকর সিকদার, বরিশাল বিভাগীয় প্রধান।

দর্শনার্থীদের আগমন ও ভ্রমণের জন্য সুন্দরবনের পর্যটন শিল্প খুলে দেয়ার দাবীতে মোংলায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে সুন্দরবন পর্যটন ব্যবসায়ী-কর্মচারীরা।

সোমবার (৩১আগষ্ট)বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পৌর শহরের মামার ঘাট সংলগ্ন মোংলা নদীর পাড়ে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে সুন্দরবনের পর্যটন শিল্পের সাথে জড়িত কয়েক’শ নৌযান মালিক ও কর্মচারীরা অংশ নেন। মানবনবন্ধনে বক্তারা করোনা বিধি নিষেধ এবং পরিবেশের সুরক্ষা নিয়মকানুন মেনেই পর্যটন ব্যবসা পরিচালনার করার প্রতিশ্রুতিও দেন।

করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে মার্চ মাস থেকে সুন্দরবনে পর্যটক ও নৌযান চলাচল বন্ধ করে দেয় বন বিভাগ। এর ফলে দীর্ঘ ৬ মাস ধরে এ পর্যটন শিল্পের সাথে জড়িত ৫০টি লঞ্চ, সাড়ে ৩শ’ জালিবোট ও দেড়’শ ট্রলারের প্রায় ৫ হাজার মালিক এবং কর্মচারীরা বেকার হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। মানববন্ধন থেকে সুন্দরবন নির্ভরশীল পর্যটন ব্যবসায়ী ও কর্মচারীরা দ্রুত সুন্দরবন খুলে দেয়ার জন্য বন বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এ সময় তারা বলেন, দেশের বিভিন্নস্থানের পর্যটন কেন্দ্র ইতিমধ্যে খুলে দেয়া হলেও ব্যতিক্রম সুন্দরবনের ক্ষেত্রে। ব্যবসায়ী-কর্মচারীদের দাবী অচিরেই সুন্দরবন খুলে দেয়া হোক, তা না হলে আমাদের পথে বসতে হবে। পাশাপাশি আর্থিকভাবেও ক্ষতিগ্রস্থ হবে বন বিভাগ।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. বেলায়েত হোসেন বলেন, এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্র্তৃপক্ষের কাছ থেকে এখনও পর্যন্ত কোন ধরণের নিদের্শনা আসেনি। নিদের্শনা পেলেই পর্যটকদের জন্য অবশ্যই সুন্দরবন খুলে দেয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 DainikBanglarMukh.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com