রবিবার, ২২ নভেম্বর ২০২০, ০৪:২৩ অপরাহ্ন

নোটিশ :
সারাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে। বিস্তারিত জানতে কল করুন : ০১৯২৭৬১৬৪৬৩
সংবাদ শিরোনাম :
মাস্ক পরিধান নিশ্চিতে জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট মৌলভীবাজারে শাহজালাল (র.) ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের দোয়া মাহফিল ঢাকায় ফেডারেশন অব সার্ক জার্নালিস্ট অর্গানাইজেশনের মতবিনিমিয় সভা মহেশপুরের শ্যামকুড় ইউনিয়নে পুলিশ ইনভেস্টিগেশন ক্যাম্প স্থাপনের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। ঝিনাইদহে দুই সাংবাদিকের নামে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সমাবেশ ও মানববন্ধন পালিত নোয়াখালী হাতিয়া উপজেলার কৃতি সন্তান মোহাম্মদ খিজির হায়াত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত ঢাকায় আরজেএফ’র উদ্যোগে স্মরণসভা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্র হিমেল সাহেব বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। শরীয়তপুরের ডা. হেলাল উদ্দিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি ছাত্র জহির উদ্দিন খসরু বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত
এগিয়ে আ’লীগ নেএী পারভীন তালুকদার মায়া ঝিনাইদহ-৩ আসনে চলছে নির্বাচনী প্রচারনা

এগিয়ে আ’লীগ নেএী পারভীন তালুকদার মায়া ঝিনাইদহ-৩ আসনে চলছে নির্বাচনী প্রচারনা

মো:সাবিবর হোসেন’….

ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর ও কোটচাঁদপুরে

রাজপথ কাঁপানো নারী নেতৃত্ব উজ্জ্বল নক্ষত্র আওমী  মহিলা লীগের আইকন খ্যাত একজন সুযোগ্য কর্নধার হলেন পারভীন তালুকদার মায়া

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ঝিনাইদহ-৩ (মহেশপুর কোটচাঁদপুর – নাটিমা ইউনিয়ানের নোয়ানীপাড়া উঠান বৈঠকে- মায়া ।

নারী জাগরনে পথে, প্রত্যেক নারীকে স্বাবলম্বী ও শিক্ষিত হয়ে সমাজ গঠনে এগিয়ে অভসতে হবে। নারী ক্ষমতায়ন পারে নারী সম অধিকার প্রতিষ্টায় ভূমিকা রাখতে।ঝিনাইদহ-৩ (মহেশপুর কোটচাঁদপুর, বিএনপি জামায়াতের শক্ত ঘাটি হিসেবে পরিচিত , ঝিনাইদহ-৩ আসনে চলছে নির্বাচনী প্রচারনা, দলের সামর্থন পেতে গণসংযোগ সভাসমাবেশ করে চলেছে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রাথী পারভীন তালুকদার মায়া।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে মহেশপুর কোটচাঁদপুর স¤ভাব্য প্রাথীরা ভোটারদের মন জয় করতে নানা ধরনের প্রচার কার্যক্রম শুরু করেছেন। বিএনপি জামায়াতের শক্ত ঘাটি হিসেবে পরিচিত এ আসনটি আওয়ামী লীগের দখলে আসে নবম সংসদ নির্বাচন।

মনোনয়ন পাওয়ার জন্য প্রতিটি গ্রামে,পাড়া,মহল্লায় ছুটে চলেছেন জনগনের সমর্থন পেতে। সভা-সমাবেশ গণসংযোগ করছেন দলের নিকট নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণের জন্য। সাধারণ ভোটাররা জানায়, নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় আওয়ামী লীগের মহিলা নেএী পারভীন তালুকদার মায়া এগিয়ে রয়েছেন, তাকে দল থেকে মনোনয়ন দেয়া হলে তিনি জয় লাভ করবেন। গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর বিপক্ষে কোনো প্রাথী না থাকায় বিনা প্রতদ্বন্দ্বিতায় এই আসন পায় আওয়ামী লীগ।

মহেশপুর উপজেলায় ১২টি ইউনিয়ন ২০৬ টি গ্রাম এবং কোটচাঁদপুর উপজেলায় ৫টি ইউনিয়ন ১০৫টি গ্রাম ও দুটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত আসনটি জাতীয় সংসদের ৮৩-৩ নম্বর নির্বাচনী এলাকা। বর্তমানে জেলা চারটি আসনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আলোচিত ও গুরুত্বপূর্ণ আসন এটি।

ক্ষমতাসীন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী শিল্পপতি পারভীন তালুকদার মায়া বলেন,আমি বরিশালের বাকেরগঞ্জার উপজেলার আপালকাঠি ইউনিয়নে স্বামীর এলাকাতে পর পর দুই বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বরিশালের ৩১৬ মহিলা সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য করেন। আমি এখন আমার জন্মভূমিতে এসেছি এখানকার জনগণের জন্য আমি কিছু করতে চাই।
ঝিনাইদহ-৩ নির্বাচনী প্রচারণায় আ’লীগ নেএী পারভীন তালুকদার মায়া মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীর সাক্ষাৎকার,

দৈনিক বাংলার মুখ কে; বলেন ,আপনি কি দীর্ঘদিন স্বামীর এলাকাতে রাজনীতি করেছেন।এখানকার সাধারণ জনগণ আপনাকে কিভাবে নিচ্ছে?

মায়া: আমি স্বামীর এলাকাতে থাকলেও নাড়ির টানে সবসময় ছুটে এসেছি আমার জন্মভূমি এই মহেশপুর কোটচাঁদপুরে।

এই মহেশপুরে ২০০০ সালে যখন বন্যা হয়েছিল সরকারের পাশাপাশি আমার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে খাবার, কাপড় এবং আর্থিক অনুদান দিয়ে সাহায্য করেছিলেন। তাদের পাশে থেকেছি। তখন তাদের দুঃখ কষ্টের সাথী হয়েছি। জনগণের দুঃখ কষ্ট দেখে সিদ্ধান্ত নিই আমি জনগণের জন্য কিছু করব। সেই চিন্তা ভাবনা থেকে প্রিটি গ্রুপের নামে এলাকায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছি। বর্তমানে ২০০০(দুই) হাজার শ্রমিক সুয়েটার ফ্যাক্টরিতে কর্মরত আছে। পদœাপুকুর ডিগ্রি কলেজের নাম সংযোজন করে শেখ হাসিনা পদœাপুকুর ডিগ্রি কলেজ নামকরণ করেছি। এলাকায় বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসা করে দিয়েছি। এছাড়াও এলাকার অসহায় গরিব দুস্ত মানুষকে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছি।
দৈনিক বাংলার মুখ;  আপনাদের এই এলাকা তো বিএনপি জামায়াত অধ্যষিত এলাকা। কোনো বিএনপি জামায়াত নেতা কর্মীরা আপনার থেকে কোনো ধরনের সুবিধা নিচ্ছে কি না?

মায়া: আমি জন্মের পর থেকেই আওয়ামী লীগ করি। আওয়ামী লীগের পরিবারেই আমার জন্ম। আমার স্বামীও আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। অতএব বিএনপি জামায়াত পরিচয় দিয়ে আমার থেকে সুযোগ নিবে তার কোনো সুযোগ নাই। তবে আমাদের কর্ম, আমাদের আদর্শ দেখে কোনো বিপদগামী জনগন যদি আওয়ামী লীগের ছায়াতলে আসে তাহলে আমরা তাকে অন্তত একবার ভালো হওয়ার সুযোগ দেব।

দৈনিক বাংলার মুখ ; আপনাকে যদি আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দেয় এবং আপনি নির্বাচনে জয়লাভ করেন তাহলে আপনি এলাকায় কেমন ধরনের উন্নয়ন করতে চান?

মায়া: আমি এলাকার গরিব-দুঃখী সাধারণ মানুষের পাশে থেকেছি। তাদের সেবা, সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছি, শিক্ষিত বেকার যুবক ও কর্মক্ষম মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছি। জনগন যেন আমার প্রতি আস্তা খুঁজে পায়। তাদের দেখিয়ে দিয়েছি যে আমি তাদের জন্য কিছু করতে চাই। তাই ঝিনাইদহ-৩ (মহেশপুর কোটচাঁদপুর) নির্বাচনের জন্য আমি নিজেকে প্রাথী ঘোষণা করেছি। প্রধানমন্ত্রী যদি আমাকে আওয়ামী লীগের প্রাথী হিসাবে মনোনয়ন দেন তাহলে আমি নির্বাচন করব। আর আমি যদি আ য়ামী লীগের প্রাথী হিসেবে জয়লাভ করতে পারি। তাহলে এলাকার সাধারণ মানুষ এবং আওয়ামী লীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকমী যাদের অনেক স্বপ্ন ছিলো
সেই স্বপ্ন কোনো দিন পূরণ হয় নাই। আমি নির্বাচিত হতে পারলে সেই স্বপ্ন পূরণ করব। বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশে যে উন্নয়ন হয়েছে তার বিন্দুমাএ উন্নয়ন এই মহেশপুর কোটচাঁদপুর উপজেলাতে হয় নাই। আমি নির্বাচিত হয়ে সাধারণ জনগণকে দেখিয়ে দিতে চাই সরকার বাংলাদেশে কত উন্নত করেছে। এই মহেশপুর কোটচাঁদপুর আমার জন্ম ভূমিটাকে শিল্পকারখানা গড়ে তুলে বেকারত্ব দূর করব। কোনো ছেলে মেয়ে যেন লেখাপড়া শিখে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে না বেড়ায় একটা চাকরির জন্য সেই ব্যবস্থা হবে মহেশপুর কোটচাঁদপুরে। এই দুই উপজেলাকে আমি শিল্প নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

দৈনিক বাংলার মুখ ; আপনি কি ঝিনাইদহ জেলাকে নিয়ে কিছু ভাবছেন ! যেমন আপনি আপনার এলাকাতে ফ্যাক্টরি বা কর্মসংস্হনের সুযোগ হয় এমন কোনো প্রতিষ্ঠান গড়ার।

মায়া: আমি আপাতত ঝিনাইদহ জেলাকে নিয়ে কিছুই ভাবছি না। আমি যদি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নাও পাই। তারপরও শিক্ষিত হোক বা না হোক এই মহেশপুর কোটচাঁদপুর উপজেলাতে কোনো বেকার থাকবে না। চাকরির জন্য ঢাকা, চিটাগং, বিদেশ যাওয়া লাগবে না। উল্টো ঢাকা, চিটাগায়ের মানুষই আসবে এই মহেশপুর কোটচাঁদপুরে আমি সেই ব্যবস্থা করব। তবে আমার এলাকাতে সফলভাবে শতভাগ উন্নয়ন করতে পারলে তখন ঝিনাইদহ জেলাকে নিয়ে ভাবব। তবে ইতোমধ্যে এলাকায় গরিব-দুঃখী মানুষের সেবক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন পারভীন তালুকদার মায়া।

 

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 DainikBanglarMukh.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com